অক্টাল সংখ্যা থেকে হেক্সাডেসিমেল ও হেক্সাডেসিমেল সংখ্যা থেকে অক্টাল সংখ্যায় রূপান্তর পদ্ধতি

শিক্ষার্থী বন্ধুরা সংখ্যা পদ্ধতি বিষয়ক লেকচারে তোমাদের সবাইকে স্বাগতম। গত চার পর্বে সংখ্যা পদ্ধতির রূপান্তরের নানান দিক আমরা শিখেছি। সর্বশেষে আজকে আমরা শিখব কিভাবে অক্টাল সংখ্যা থেকে হেক্সাডেসিমেল ও হেক্সাডেসিমেল সংখ্যা থেকে অক্টাল সংখ্যায় রূপান্তর করা যায়। এর জন্য তোমাকে অবশ্যই পূর্বের চারটি পর্ব ভালো মত বুঝতে হবে। না হলে কিন্তু এই পর্বের কিছুই বুঝবে না। তো চল শুরু করা যাক আজকের লেকচার।

 

অক্টাল থেকে হেক্সাডেসিমেলঃ

কোন অক্টাল সংখ্যাকে হেক্সাডেসিমেলে রূপান্তর করা যায় দুই ভাবে। প্রথমে অক্টাল সংখ্যাটিকে দশমিকে রূপান্তর করতে হবে, তারপর দশমিক সংখ্যাটিকে হেক্সাডেসিমেলে রূপান্তর করতে হবে।

অন্য অরেকটি ধাপ হচ্ছে, অক্টাল সংখ্যাটিকে প্রথমে বাইনারিতে রূপান্তর করতে হবে। তারপর বাইনারি সংখ্যাটিকে হেক্সাডেসিমেলে রূপান্তর করতে হবে। আমার কাছে দ্বিতীয় পদ্ধতিটাই সহজ মনে হয়। তাই এই পদ্ধতি নিয়েই আলোচনা করব।

 

উদাহরণ হিসেবে (৬০৩.৩১) সংখ্যাটিকে হেক্সাডেসিমেলে রূপান্তর করব।

পাশের চিত্র লক্ষ্য কর, প্রথমে অক্টাল সংখ্যাটিকে বাইনারিতে রূপান্তর করেছি এবং পরে বাইনারি থেকে হেক্সাডেসিমেলে রূপান্তর করেছি। এই কাজটা কিভাবে করেছি তা পূর্বের লেকচারে আলোচনা করা হয়েছে।

 

 

হেক্সাডেসিমেল থেকে অক্টালঃ

কোন হেক্সাডেসিমেল সংখ্যাকে অক্টালে রূপান্তর করা যায় দুই ভাবে। প্রথমে হেক্সাডেসিমেল সংখ্যাটিকে দশমিকে রূপান্তর করতে হবে, তারপর দশমিক সংখ্যাটিকে অক্টালে রূপান্তর করতে হবে।

অন্য অরেকটি ধাপ হচ্ছে, হেক্সাডেসিমেল সংখ্যাটিকে প্রথমে বাইনারিতে রূপান্তর করতে হবে। তারপর বাইনারি সংখ্যাটিকে অক্টালে রূপান্তর করতে হবে। আমার কাছে দ্বিতীয় পদ্ধতিটাই সহজ মনে হয়। তাই এই পদ্ধতি নিয়েই আলোচনা করব।

 

উদাহরণ হিসেবে (১২A)১৬ সংখ্যাটিকে অক্টালে রূপান্তর করব।

পাশের চিত্র লক্ষ্য কর, প্রথমে হেক্সাডেসিমেল সংখ্যাটিকে প্রথমে বাইনারিতে রূপান্তর করেছি এবং পরে বাইনারি সংখ্যাটিকে অক্টালে  রূপান্তর করেছি। এই কাজটা কিভাবে করেছি তা পূর্বের লেকচারে আলোচনা করা হয়েছে।

 

 

 

 

ত এই ছিল আজকের লেকচারে। আশা করি তোমারা বিষয়গুলো পরিষ্কারভাবে বুঝতে পেরেছ। যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে নিচে কমেন্ট বক্স এর মাধ্যমে তা করতে পার। সবাইকে অনুরোধ করব, কয়েকবার করে লেখাটা আস্তে আস্তে মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্য। বন্ধুদের সাথে গ্রুপ স্টাডি করবে এবং বইয়ের অনুশীলনী থেকে প্রচুর প্র্যাকটিস করবে। এতে করে বিষয়গুলো ভালোমত বুঝা যায়।